Cookie Policy          New Registration / Members Sign In
PrabashiPost.Com PrabashiPost.Com

বন্যা নিয়ে তরজা

Flood-tourist politicians from Westminster sport their wellies to be with the marooned but the British people are yet to be convinced.

Tirthankar Bandyopadhyay
Fri, Feb 14 2014

About Tirthankar

Tirthankar has spent much of his professional life working for the BBC. He is the editor of Prabashi Post.


More in Views

An Enigmatic Beauty

লিস্টিকেল

বরিশালের বাঙাল

My many Kolkata

 
ড্যাচেটে টেমসের পাড়ে বাড়ি কেনাই কাল হলো গ্রাহাম অ্যামিসের । ব্রিটেনে, বিশেষ করে ইংল্যান্ডে নদীর পাড়ে বাড়ি থাকা আভিজাত্যের লক্ষণ বলে মনে করা হয় । তাই নামী তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কাজ পেয়েই উইন্ডসরের কাছে ড্যাচেট গ্রামে বাড়ি কিনে ফেলে গ্রাহাম । অথচ বছর ঘুরতে না ঘুরতেই বন্যার জন্য তাকে বাড়িছাড়া হতে হয়েছে ।

উইন্ডসরে রাণীর বাড়ির কাছে ছবির মতো প্রাচীন এই গ্রামটিও বন্যার হাত থেকে রেহাই পায়নি । অগত্যা মেয়ে-বউকে নিয়ে এক আত্মীয়ের বাড়িতে উঠেছেন বছর তিরিশের এই তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ।

গত বেশ কয়েক বছর ধরেই বন্যা ইংল্যান্ডে এক বাৎসরিক ঘটনা । দেশের পশ্চিম, উত্তর এবং পূর্বাঞ্চল এর আগে বেশ কয়েকবার বন্যা কবলিত হলেও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল, বিশেষ করে লন্ডনের আশপাশের জায়গাগুলো সেভাবে প্রভাবিত হয়নি । এবারে, বৃহত্তর লন্ডনের কিংস্টন, মেইডেনহেড এবং স্টেইন্সের মতো অভিজাত এলাকা প্লাবিত হতেই সবার টনক নড়েছে ।

পশ্চিম সাসেক্সের হরিশ দাভদার কথায়, “এ যেন অর্থনীতির সেই চিরাচরিত কল্পকাহিনী । যেখানে ব্যবসা আছে, রাজনৈতিক প্রভাব আছে সেখানকার অবস্থা নিয়ে মাথা ঘামাও । অন্যরা নিজেদের ব্যবস্থা করে নেবে ।”

একই কথা শোনা গেলো, পশ্চিম উপকূলের কর্নোয়ালের মোটেল মালিক অ্যানি উইন্ডহ্যামের গলায় । বেশ কয়েক বছর আগে অ্যাটলান্টিকের গা ঘেঁষা পেঞ্জান্সে বেড়াতে গিয়ে অ্যানির সাথে আলাপ । ইংল্যান্ডের একটা বড় অংশ যখন বন্যা কবলিত তখন কেমন আছে জানতে চাইলে, হতাশ গলায় অ্যানির জবাব, “আমাদের কথা আর কে ভাবে । সবাই তো চিন্তিত সাউথ-ইস্ট নিয়ে কারণ ওখানে ব্যবসা আছে, অর্থ আছে ।”

পেঞ্জান্সে জেলেদের একটা গ্রামে ঘুরতে গিয়েছিলাম । রাজ কাপুরের ববি সিনেমায় যেমন দেখেছি । সবাই নিজেদের নিয়ে আনন্দে মেতে আছে । অ্যানির সাথে কথা বলার সময় ঐ গ্রামের জেলেদের কথা মনে পড়ে গেল । গত কয়েক মাস ধরে ঝড়-ঝঞ্জায় ওদের কাজ-কারবার প্রায় লাটে ঊঠতে বসেছে , কিন্তু তা নিয়ে ভাবার সময় কারো নেই ।



দক্ষিণ-পশ্চিম ইংল্যান্ডে ডরসেটের কলিন্স দম্পতি যেমন বলছিলেন, “বড়দিনের সময় থেকে আমরা কার্যত জলবন্দী । রোস্ট-টার্কি আর ইয়র্কশায়ার পুডিং-এর বদলে শুকনো পাউরুটি খেয়ে আমাদের বড়দিন কাটাতে হয়েছে । তখন কারোর আমাদের কথা মনে পড়েনি ।”

এখন অবশ্য টেমসের জল বাড়ার সাথে সাথে বন্যা নিয়ে রাজনীতিকদের তরজা জমে উঠেছে । চলছে দোষারোপের পালা । যে কোনো দেশের রাজনীতিকরা যে কাজে সিদ্ধহস্ত ব্রিটেনেও তার কোনো ব্যতিক্রম হয়নি ।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী এরিক পিকলস্‌ ইতিমধ্যে এনভায়রন্‌মেন্ট এজেন্সিকে এই বিপর্যয়ের জন্য দায়ী করেছেন । আবার এনভায়রন্‌মেন্ট এজেন্সির প্রধান লর্ড স্মিথ জবাবে বলেছেন, সরকারের নীতি মেনেই তারা কাজ করে চলেছেন । তিক্ততা এমন পর্যায়ে পৌছেছে যে শেষ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনকে হস্তক্ষেপ করতে হয় । বিশেষজ্ঞদের ধারণা, সরকারী ব্যয়ে কাটছাঁটের কারণে নদীর পলি পরিস্কার ব্যাহত হওয়াতেই এই বিপর্যয় ।

বিরোধী লেবার দলও এমন মোক্ষম সুযোগ হাতছাড়া করতে নারাজ । তাদের শাসনকালে হওয়া বন্যার কথা বেমালুম ভুলে গিয়ে লেবার এখন সরকারের বিরুদ্ধে খড়্গহস্ত ।

রাজনৈতিক বাধ্যবাধকতা এবং বীমা সংস্থাগুলোর চাপ সামাল দিতে শেষ পর্যন্ত মাঠে নেমেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী । রীতিমতো রেইনকোট এবং লম্বা ওয়েলিংটন বুট পড়ে বন্যা দেখতে গিয়ে ডেভনের কাছে ডওলিশে ডেভিড ক্যামেরন বলেন, “রাজনীতি নয় বরং জনগনের স্বস্তির জন্য যা যা করা দরকার তার সরকার তাই করবে ।”

শুধু তাই নয়, এই ঝড় ঝঞ্জার দিনে, লন্ডনের বাইরে বন্যা বিদ্ধস্ত এলাকায় রাত কাটিয়ে বৃটিশ জনগনকে এই বার্তাই দিতে চেয়েছেন যে তিনি তাদের সাথেই আছেন ।

এরমধ্যেই লন্ডনের পশ্চিম শহরতলি স্লাও থেকে জল ঠেলে সেন্ট্রাল লন্ডনে কাজে গেছেন কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার অমিতাভ রায় । দেখা হতেই জানালেন ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যে এখন আর কোনো ফারাকই নেই ।

আর বন্ধু সাংবাদিক প্রসুন সোনওয়াল্কার ফেইসবুকে লিখেছেন , “কীভাবে এমন বাৎসরিক বন্যা সামাল দেওয়া যায় তা নিয়ে ভারতের সহযোগিতা চাইতে পারে ক্যামেরন সরকার ।”

ক’দিন আগেই ব্রিটেনের চ্যান্সেলর জর্জ ওসবোর্ন অর্থনীতি নিয়ে আশার কথা শুনিয়েছিলেন । এবারের এই নজিরবিহীন বন্যার পরে সেই আশার আলো আর দেখা যাবে কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয় ।

Please Sign in or Create a free account to join the discussion

bullet Comments:

 

 

  Popular this month

 

  More from Tirthankar


PrabashiPost Classifieds



advertisement


advertisement


advertisement